কেইস রিভিউ : তনু হত্যা এবং আমাদের অপরাধ সাক্ষরতা

কেইস রিভিউ : তনু হত্যা এবং আমাদের অপরাধ সাক্ষরতা

September 3, 2016 0 By armletbd

মাসুদ করিম

——————————– বাংলাদেশ জোয়ারের জাতি, Maglia Isaiah Thomas new balance 530 femme যখন কোন কিছু ঘটে আমরা সেটা জোয়ারের মতো সাড়া দেই আবার ভাটার মতো পিছিয়ে যাই। একেকটা ঘটনা প্রবাহ আমাদের আরেকটি ঘটনাকে সহজেই ভুলিয়ে দিতে পারে, Phil Simms nike air max goedkoop আবার কেও কেও এই বিষয়গুলোকে রাজনৈতিক প্রভাবিত বলে ব্যাখ্যাও করে থাকেন, Womens Air Jordan 11 Von Miller যে একটি ঘটনা আরেকটি ঘটনা দিয়ে ঢেকে দেওয়া হলো। আমাদের গন জোয়রকে যদি কেও বা কোনদল নিয়ন্ত্রন করতেই পারে তবে সেই ব্যক্তি বা দল সর্বচ্চো ক্ষমতাবান হিসেবে পশংসা পাওয়ার দাবি রাখে, nike air huarache hombre nike air max 2017 pas cher এটা নিয়ে বিলাপের কিছু নেই, Yunel Escobar Jersey হয় আপনি জোয়ারের সাথে ভেসে ভুলে যাবেন অথবা নিজের মতো সোচ্চার থাকবেন। মুলকথা আমাদের নিজেদের সব সময় সোচ্চার থাকতে হবে, LA Dodgers Jersey Asics Gel Lyte 3 Baratas অন্যকেও বা অন্যএকটি ঘটনা আরেকটি ঘটনাকে আক্রান্ত করে যেন সহজেই আপনাকে ভুলিয়ে দিতে না পারে। আর ভুলিয়ে দিতে পারলে সে দায়ভার আপনারই। শুধু মাত্র কতিপয় হটটপিকস নিয়েই সোচ্চার থাকা একটি শব্দব্যাবসায়িক কাজ হিসেবে গতিশীল থাকতে পারে।

নিরক্ষরতার জন্য যেমন অক্ষরজ্ঞানের প্রয়োজন যাকে সাক্ষরতা বলে, Nike Roshe Run Femme soldes adidas pas cher তেমনি একজন সচেতন নাগরিকদের অপরাধ সাক্ষরতার জরুরি , Justin Hunter Titans Jerseys Maglia Tony Parker যে জ্ঞান অপরাধ বিষয়ে প্রতিরোধ বা প্রতিকারেরর নুন্যতম ভাবে সহায়ক হবে। আমাদের অপরাধ সাক্ষরতা অর্জনে কেইস রিবিউ একটি অন্যতম উৎস হতে পারে যার ধারাবাহিক চর্চা আমাদেও সঠিক পতিক্রিয়ার পতে নিয়ে যাবে এবং নিদৃষ্ট বিষয়ে চেতনাকে শক্তিশালী করবে। আমাদের দেশের এবছরের আলোচিত অপরাধের তালিকায় বিগত সোহাগী জাহান তনু একটি আলোচিত কেইস।

কেইস রিভিউ ।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনুর লাশ পাওয়া যায় গত ২০ মার্চ রাতে কুমিল্লা সেনানিবাসের জঙ্গলে। ঘটনাটি প্রথমে পুলিশ তদন্ত করলেও পরবর্তীতে র‌্যাব এবং সিআইডি নিকট হস্তান্তরিত হয়, Air Max 2016 Goedkoop এবং সিআইডর তত্তাবধানে তনুর লাশ ময়না তদন্তের জন্য তোলা হয়। ২১ মার্চ করা প্রথম ময়না তদন্ত নিয়ে নানান প্রশ্ন উত্থাপিত হতে থাকে। আদলতের নির্দেশে ৩০ মার্চ ২য় ময়না তদন্ত করা হয়। প্রথম ময়না তদন্তে তনুকে ধর্ষনের কোন আলামত না পাওয়া গেtonuলেও দ্বিতীয় ময়না তদন্তের পর সিআইডি তনুর ধর্ষনের ব্যাপারে নিশ্চিত হয় এবং তিন থেকে চার জন পুরুষের ডিএনএ প্রাপ্তির কথা প্রকাশ করে।মামলা আটকে যায় ডিএনএ রিপোর্টে। মাসের পর মাস গড়াতে থাকে তনুকে নিয়ে মিটিং মিছিল কমতে থাকে, chaussures asics pas cher

  • nike free run 5 0 grigio uomo
  • এবং তনুহত্যার ব্যাপারে কেও গ্রেফতার হয়না। তনুকে নিয়ে নানা রহস্যময় গল্প জুন মাসের মধ্যেই প্রত্রকিার পাতা থেকে বিলীন হতে থাকে। মুলত তনূকে নিয়ে নানা প্রশ্ন উত্তথাপিত হলেও উত্তোর খোজার ব্যাপারে কোন অগ্রগতি নেই। তনুকে ধর্ষণ করা হলো কেন, Asics Aoldes adidas superstar rose gold femme হত্যা করা হলো কেন,

    Comments

    comments